রবিবার, জুন 16, 2024

পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন মরিয়ম নওয়াজ

Must read

- Advertisement -

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পর পাঞ্জাবের প্রাদেশিক পরিষদে পিএমএল-এন দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। যার ফলে নওয়াজ শরীফের মেয়ে মরিয়মের এই পদে নির্বাচিত না হওয়ার তেমন কোন সম্ভাবনা নেই।

পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন মরিয়ম নওয়াজ | সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পর পাঞ্জাবের প্রাদেশিক পরিষদে পিএমএল-এন দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। যার ফলে নওয়াজ শরীফের মেয়ে মরিয়মের এই পদে নির্বাচিত না হওয়ার তেমন কোন সম্ভাবনা নেই।

সোমবার পাকিস্তানের পাঞ্জাবের প্রাদেশিক পরিষদে নতুন মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন হবে। সংশ্লিষ্টদের মতে, পাকিস্তানের মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) দলের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট মরিয়ম নওয়াজই হতে যাচ্ছেন এই প্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী। 

সোমবার এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানের গণমাধ্যম জিও টিভি।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পর পাঞ্জাবের প্রাদেশিক পরিষদে পিএমএল-এন দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। যার ফলে নওয়াজ শরীফের মেয়ে মরিয়মের এই পদে নির্বাচিত না হওয়ার তেমন কোন সম্ভাবনা নেই।

বিজয়ী হলে মরিয়মই হবেন পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী।

৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে পাঞ্জাবের একটি আসন থেকে জয়লাভ করেন মরিয়ম নওয়াজ। কেন্দ্র ও প্রদেশগুলোয় জোট সরকার গঠন নিয়ে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ও পিএমএল–এনের টানা কয়েক দিনের আলোচনার পর গত সপ্তাহে সরকার গঠন বিষয়ে সমঝোতা হয়। এরপর পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদে পিএমএল-এন থেকে মরিয়মকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

সোমবার পাকিস্তানের স্থানীয় সময়য় সকাল ১১টা থেকে প্রাদেশিক পরিষদের অধিবেশন শুরু হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন সদ্য নির্বাচিত স্পিকার মালিক আহমাদ খান।পাঞ্জাব পরিষদে পিএমএল-এন এর সমর্থনে ২২৪ জন অ্যাসেম্বলি সদস্য রয়েছেন।

মরিয়মের প্রতিদ্বন্দ্বী হলে সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলের (এসআইসি) পক্ষ থেকে তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের জ্যেষ্ঠ নেতা আফতাব আহমাদ খান। তার পক্ষে আছেন ১০৩ জন সদস্য।

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হতে ৩২৭ আসনের প্রাদেশিক পরিষদে ১৮৭ সদস্যের সমর্থন প্রয়োজন। .

প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি মরিয়ম হবেন পাকিস্তানের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী শরীফ পরিবারের চতুর্থ মুখ্যমন্ত্রী। 

মরিয়মের আগে পাকিস্তানের রাজনীতিতে সাধারণ নির্বাচন বা উপনির্বাচনে আসন পেয়েছেন এই পরিবারের আরও পাঁচ সদস্য। তারা হলেন নওয়াজ শরীফ, শেহবাজ শরীফ, আব্বাস শরীফ, হামজা শেহবাজ ও বেগম কুলসুম নওয়াজ।

সূত্ররা জানিয়েছেন, পিএমএল-এন ইতোমধ্যে মরিয়মের মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম চূড়ান্ত করতে শুরু করেছে।তারা জানান, প্রাদেশিক মন্ত্রিসভায় জোটের মিত্রদলগুলোর সদস্যরাও থাকতে পারেন।তারা আরও জানান, প্রাথমিকভাবে মন্ত্রিসভায় মুসলিম লীগের ১৫-২০ জন মন্ত্রী, পিপিপি ও পিএমএল-কিউ থেকে দুই জন করে এবং পরিশেষে, ইসতেখাম-এ-পাকিস্তান পার্টির (আইপিপি) একজন মন্ত্রী থাকবেন।

- Advertisement -
- Advertisement -

More articles

- Advertisement -

Latest article